1. admin@sylhetkushiara.com : admin :
সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ০২:৫০ পূর্বাহ্ন
প্রধান খবর
মোঃ রেহান উদ্দিন মাষ্টার (প্রাক্তন চেয়ারম্যান) আমাদের মধ্যে আর নেই ! শরিফগঞ্জ ইউনিয়ন বিএনপি’র সভাপতি গেদাই, সাঃ সম্পাদক কামাল ও সাংগঠনিক শাহীন কুশিয়ারা যুব কল্যাণ পরিষদের নতুন কমিটি শাহান সভাপতি ও জুয়েল সাধারণ সম্পাদক কুশিয়ারা যুব কল্যাণ পরিষদের শোক সভা অনুষ্ঠিত গোলাপগঞ্জে ঢাকাদক্ষিন ইউনিয়ন বিএনপির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত গোলাপগঞ্জে বাদেপাশা ইউনিয়ন বিএনপির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন সম্পন্ন গোলাপগঞ্জে বুধবারীবাজার ইউনিয়ন বিএনপি’র দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন সম্পন্ন গোলাপগঞ্জে বাদেপাশা ও বুধবারীবাজার ইউনিয়ন বিএনপির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত গোলাপগঞ্জের ভাদেশ্বর ইউনিয়ন বিএনপি’র দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত গোলাপগঞ্জের লক্ষনাবন্দ ইউনিয়ন বিএনপির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন সম্পন্ন
add

ভাদেশ্বর ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী সৈয়দ রেজাউল করিম আলো’র নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষনা

  • বৃহস্পতিবার, ২৩ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ১০৬ বার পড়া হয়েছে

সিলেট কুশিয়ারা ডেস্ক : সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার ৮নং ভাদেশ্বর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী সৈয়দ রেজাউল করিম আলো নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষনা করেছেন। আজ ২৩ ডিসেম্বর (বৃহস্পতিবার) দুপুরে স্থানীয় একটি কমিউনিটি সেন্টারে তিনি এ নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষনা করেন।

নির্বাচন কমিশন ঘোষিত আগামী ২৬ ডিসেম্বরের চতুর্থ ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে গোলাপগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী ৮নং ভাদেশ্বর ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মোটর-সাইকেল প্রতিক নিয়ে সৈয়দ রেজাউল করিম আলো প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

ইশতেহার ঘোষণা পূর্বে স্বাগত বক্তব্যে তিনি বলেন, চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান, মেম্বারদের সহযোগিতা ও পরামর্শ নিয়ে আমি ইউনিয়ন পরিষদ পরিচালনা করব। তাছাড়া ইউনিয়নের মুরুব্বীয়ান ও যুবকদের সমন্বয়ে এলাকার বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ ও প্রতিকূল পরিস্থিতিতে বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠনের মাধ্যমে সঠিক কর্ম-পরিকল্পনা নির্ধারণ করব। নারী ও শিশু নির্যাতনের বিরুদ্ধে প্রতিটি গ্রামে সুশীল সমাজকে নিয়ে প্রতিরোধ কমিটি গঠন করা হবে। সেইসাথে সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা প্রদানের জন্য হিন্দু-মুসলিম ঐক্য কমিটি গঠন করবো।

রেজাউল করিম আলো তার নির্বাচনী ইশতেহারে ২৭দফা ইউনিয়নের ভোটারদের নিকট তুলে ধরেন। এগুলো হচ্ছে :
(১) জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন, নাগরিকত্ব সনদ, উত্তরাধিকারী সনদ সহ সব ধরণের ফি যথাসম্ভব কমিয়ে আনা এবং দ্রুততম সময়ে তা প্রদানের নিমিত্তে কর্মকর্তা ও প্রয়োজনীয় সরঞ্জামাদির ব্যবস্থা। (২) দ্বিতীয় কুড়াসেতুর বর্তমান সমস্যা সমাধানে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ। (৩) মাইজভাগ খুর্শিদ আলী খেয়া ঘাটের পূর্ব হতে ছিলিমপুর গ্রামের দক্ষিণ রাস্তা দ্রুত ঢালাইয়ের ব্যবস্থা করণ। (৪) খুর্শিদ আলী খেয়াঘাট হতে কোনাগাও পর্যন্ত অবহেলিত এই রাস্তাটি নির্মাণ করে এ অঞ্চলের শিক্ষা ব্যবস্থা প্রসার ঘটানো। (৫) খুর্শিদ আলী খেয়াঘাটের পূর্ব হতে বড়বাড়ী নিয়াগুল পর্যন্ত রাস্তাটি সরকারি করণের মাধ্যমে পিচ ঢালাই করণ। (৬) ইউনিয়নের অন্তর্গত সকল বাজারের ড্রেনেজ ব্যবস্থা। (৭) প্রয়োজনীয় স্থান সমুহে উন্নতমানের যাত্রী ছাউনি ও গণসৌচাগার নির্মাণ সহ মহিলাদের জন্য আলাদা শৌচাগারের ব্যবস্থা। (৮) নদীর প্রতিটি ঘাটে সিঁড়ি নির্মাণ করা। (৯) প্রতিটি বিদ্যালয়ের খেলার মাঠের উন্নয়ণ করা। (১০) শিক্ষার্থীদের নিবন্ধন দ্রুত সম্পন্ন করা ও ফি সর্বনিম্ন রাখা। (১১) দক্ষিণভাগ উত্তরপাড়ের রাস্তাটি দ্রুত ঢালাইয়ের আওতায় আনা। (১২) ঝরেপড়া ছাত্র-ছাত্রীদেরকে লেখা-পড়ার বিশেষ ব্যবস্থা প্রদান। (১৩) মানিককোনা- মীরগঞ্জ সড়কের সাথে সব লিংক রাস্তার উন্নয়নে রোডম্যাপ নিশ্চিত করা। (১৪) পূর্বের সকল অসমাপ্ত কাজের সমাপ্ত করণ। (১৫) দামড়ী হাওরের প্রয়োজনীয় স্থানে সেচ ব্যবস্থা করণ। (১৬) বিধবা ভাতা, বয়স্ক ভাতা, মাতৃত্ব ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা ও কৃষি ভাতা সহ অন্যান্য ভাতার সুষ্ঠু বন্টন নিশ্চিত করণ। (১৭) মাদ্রাসা শিক্ষার উন্নয়নে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ। (১৮) সাবেক চেয়ারম্যান-মেম্বার, সুশীল-সমাজ, মসজিদের ইমাম এবং আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে সাথে নিয়ে শান্তিশৃঙ্খলা রক্ষায় সন্ত্রাস, দুর্নীতি, চাঁদাবাজি ও মাদক মুক্ত সমাজ গঠনে সচেষ্ট থাকা। (১৯) যুব-সমাজকে মাদকের অবক্ষয় হতে মুক্ত করতে খেলাধুলার ব্যবস্থা করণ। (২০) ইউনিয়নবাসীর জীবনমান উন্নয়ন ও নিরাপত্তার স্বার্থে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি ওয়ার্ড ভিত্তিক প্রয়োজনীয় কার্যক্রম পরিচালনা। (২১) অগ্রাধিকার ভিত্তিতে রাস্তার উন্নয়ন এবং কৃষি কাজে কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করণ। (২২) ইউনিয়নের সকল ব্যবসায়ীদেরকে নিয়ে বৃহৎ সংগঠন করে ব্যবসায়ীদের কল্যাণে কাজ করা। (২৩) হাট-বাজার সমূহের ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নয়ণ, নির্ধারিত স্থান সমূহে ছাউনি নির্মাণ ও ময়লা ফেলার জন্য নির্দিষ্ট স্থান নির্ধারণ। (২৪) সরকারি ত্রাণ সামগ্রীর সুষম বন্টন ও জনসংখ্যার আনুপাতিক হারে ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে মেম্বারদের নিয়ে সকল সরকারি বরাদ্দ প্রদান। (২৫) শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার-মান ও পরিবেশ উন্নয়নে শিক্ষক ও শিক্ষিত সমাজকে সাথে নিয়ে কাজ করা, মেধাবী ও দরিদ্র শিক্ষার্থীদের জন্য ব্যক্তিগত তহবিল থেকে উপবৃত্তি চালু করণ। (২৬) ইউনিয়নে যুব প্রশিক্ষণ কেন্দ্র স্থাপন। (২৭) ভাদেশ্বর ইউনিয়নকে তিনটি ব্লকে বিভক্ত করে প্রতিটি ব্লকে গ্রাম আদালত স্থাপন, সাবেক চেয়ারম্যান, মেম্বার ও গণ্যমান্য কর্মীদের সমন্বয়ে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা করা। এ সময়ে তিনি আরো বলেন, বিজয়ী হলে আপনাদের সকলের সহযোগিতায় অন্যায় ও জুলুমের বিরুদ্ধে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে ৮নং ভাদেশ্বর ইউনিয়নকে একটি আদর্শ মডেল ইউনিয়ন করার চেষ্টা করব ইনশাআল্লাহ।

ইশতেহার ঘোষণা কালে এলাকার বিশিষ্ট রাজনৈতিবিদ, সুশীল সমাজের ব্যক্তিবর্গ ছাড়াও গম্যমান মুরব্বিয়ানগন উপস্থিত ছিলেন।

add

ভালো লাগলে এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই কেটাগরির আরো খবর
add

বাংলাদেশে কোরোনা

সর্বশেষ (গত ২৪ ঘন্টার রিপোর্ট)
আক্রান্ত
মৃত্যু
সুস্থ
পরীক্ষা
সর্বমোট
© sylhetkushiara 2020 All rights reserved. কারিগরি সহায়তা: WhatHappen
Theme Customized By BreakingNews