1. admin@sylhetkushiara.com : admin :
শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৯:২৬ পূর্বাহ্ন
প্রধান খবর
সিলেট মহানগর বিএনপি’র আহবায়ক কমিটি: আব্দুল কাইয়ুম পংকি আহবায়ক, মিফতাহ সিদ্দিকী সদস্য সচিব সিলেট জেলা ও মহানগর কমিটিকে স্বাগত জানিয়ে গোলাপগঞ্জে স্বেচ্ছাসেবক দলের মিছিল দ্রুততম সময়ের মধ্যে ইউনিয়ন, পৌর/উপজেলা ও জেলা বিএনপির কাউন্সিল সম্পন্ন করতে হবে —–ডাঃ এ.জেড.এম জাহিদ হোসেন এসির বাজারে ধস নামাবে যুক্তরাষ্ট্রের তৈরী সাদা রং শিক্ষাব্যবস্থায় নতুন নীতিমালা চূড়ান্ত; বিলুপ্ত হচ্ছে পিইসি-জেএসসি, এসএসসি’তে থাকছে না বিভাগ এ্যাডঃ মাওলানা রশীদ আহমদ এর মৃত্যুতে বিএনপি নেতা আমিন উদ্দিন আহমদ এর শোক প্রকাশ প্রধানমন্ত্রী বরাবরে সুনির্দিষ্ট কিছু প্রস্তাবনা ও দাবী সম্বলিত স্মারকলিপি প্রদান করলো: ক্যাম্পেইন ফর রিকগনিশন ইউকে করোনাসংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে গোলাপগঞ্জ উপজেলায় ইউনিয়নভিত্তিক টিকাদান কার্যক্রমের তারিখ ঘোষণা আব্দুল লতিফ তানু মিয়া’র মৃত্যুতে কুশিয়ারা যুব কল্যাণ পরিষদ সিলেটের শোক প্রকাশ অভিবাসন ও আশ্রয় বিষয়ক নতুন একটি সংস্থা খুলতে যাচ্ছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)
add

নদী ভাঙ্গনে বিলীন হয়ে যাচ্ছে প্রাচীন বিদ্যাপিঠ পনাইরচক উচ্চ বিদ্যালয় ; দেখার কেউ নেই !!!

  • বৃহস্পতিবার, ৩ জুন, ২০২১
  • ৯৬২ বার পড়া হয়েছে

সিলেট কুশিয়ারা ডেস্ক : সিলেট জেলার তেল-গ্যাস সমৃদ্ধ উপজেলা গোলাপগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী প্রাচীন বিদ্যাপীঠ ১১নং শরিফগঞ্জ ইউনিয়নের পনাইরচক উচ্চ বিদ্যালয়টি কুশিয়ারা নদীর ভাঙনের কবলে পড়ে বিলীন হতে চলেছে দেখার কেউ নেই !!! নদীর অব্যাহত ভাঙনের কবলে পড়ে বিদ্যালটির সীমানা প্রাচীরের একটি অংশ ইতিমধ্যে নদীতে বিলীন হয়ে গেছে। ভাঙন এভাবে অব্যাহত থাকলে আগামীতে বিদ্যালয়ের পুরোটা নদীগর্ভে চলে যাবে।

সংশ্লিষ্ট এলাকার সচেতন মহলের সাথে আলাপ করে জানা যায়, তাদের এলাকার মাননীয় সংসদ সদস্য ও সাবেক শিক্ষা মন্ত্রী নূরুল ইসলাম নাহিদ এই স্কুলটি একাধিকার পরিদর্শন করে গেছেন এবং নদী ভাঙন রোধে তিনি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবেন বলে দীর্ঘদিন যাবত আশ্বাস দিয়ে আসলেও বিগত এক দশক ধরে বাস্তবে কার্যকর কোন উদ্যোগই নেয়া হয় নাই।

এলাকাবাসীরা জানান, তাহারা মনে করছেন- প্রাচীন এই বিদ্যাপীঠ রক্ষায় আসলেই দেখার কেউ নেই। কারণ যেসকল প্রতিনিধি এই এলাকা থেকে নির্বাচিত হন তাদের কখনো কোন ভ্রূক্ষেপ নেই এই এলাকাকে নিয়ে।

স্থানীয়রা আরো বলেন- যখনি নির্বাচন আসে, তাহারা তখন আশায় বুক বেধে অপেক্ষা করে- এবার বুঝি তাদের অবহেলিত এলাকার উন্নয়নে কিংবা প্রানের এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি রক্ষায় স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা এগিয়ে আসবেন। কিন্ত না নির্বাচিত হয়ে তারা দিব্বি ভুলে যান এই এলাকার মানুষের কথা।

তাই বর্তমানে এলাকাবাসীর একটাই দাবি- অবহেলিত এই এলাকার প্রতি সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সু-দৃষ্টি প্রয়োজন, যদি তাই হয়, তাহলে অচিরেই ভাঙনরোধে সরকার প্রয়োজনীয় কার্যকর কোন ব্যবস্থা নিবেন।

উল্লেখ্য, প্রাচীন এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ১৯৩৮ সনে প্রতিষ্ঠার পর থেকে এই অঞ্চলের এক আলোকবর্তিকা হয়ে দাঁড়িয়ে আছে। প্রায় শত বছরের পূরোনো এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অনেক গুণিজনের জন্ম দিয়েছে, যারা জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে দেশ ও জাতির সেবা করে যাচ্ছেন।

ভাঙন কবলিত বিদ্যালয়ের সীমানা প্রাচী

এই বিদ্যালয় থেকে বর্তমানে প্রায় সহস্রাধিক ছাত্র-ছাত্রীরা শিক্ষার আলো নিচ্ছেন। শিক্ষার্থীরা জানায়, তাদের প্রানের বিদ্যাপীঠ রক্ষায় সরকার যদি অচিরেই কার্যকর কোন পদক্ষেপ না নেন, তাহলে তাহারা এবং এইবএলাকার হাজার হাজার ছেলেমেয়েরা শিক্ষার আলো থেকে বঞ্চিত হবেন। এতে করে এই এলাকার সমাজ ব্যবস্থা আগামীতে আরো পিছিয়ে পড়বে। ছবি ও প্রতিবেদন : আমিন উদ্দিন আহমদ

add

ভালো লাগলে এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই কেটাগরির আরো খবর
add

বাংলাদেশে কোরোনা

সর্বশেষ (গত ২৪ ঘন্টার রিপোর্ট)
আক্রান্ত
মৃত্যু
সুস্থ
পরীক্ষা
সর্বমোট
© sylhetkushiara 2020 All rights reserved. কারিগরি সহায়তা: WhatHappen
Theme Customized By BreakingNews