1. admin@sylhetkushiara.com : admin :
শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৯:২২ পূর্বাহ্ন
প্রধান খবর
সিলেট মহানগর বিএনপি’র আহবায়ক কমিটি: আব্দুল কাইয়ুম পংকি আহবায়ক, মিফতাহ সিদ্দিকী সদস্য সচিব সিলেট জেলা ও মহানগর কমিটিকে স্বাগত জানিয়ে গোলাপগঞ্জে স্বেচ্ছাসেবক দলের মিছিল দ্রুততম সময়ের মধ্যে ইউনিয়ন, পৌর/উপজেলা ও জেলা বিএনপির কাউন্সিল সম্পন্ন করতে হবে —–ডাঃ এ.জেড.এম জাহিদ হোসেন এসির বাজারে ধস নামাবে যুক্তরাষ্ট্রের তৈরী সাদা রং শিক্ষাব্যবস্থায় নতুন নীতিমালা চূড়ান্ত; বিলুপ্ত হচ্ছে পিইসি-জেএসসি, এসএসসি’তে থাকছে না বিভাগ এ্যাডঃ মাওলানা রশীদ আহমদ এর মৃত্যুতে বিএনপি নেতা আমিন উদ্দিন আহমদ এর শোক প্রকাশ প্রধানমন্ত্রী বরাবরে সুনির্দিষ্ট কিছু প্রস্তাবনা ও দাবী সম্বলিত স্মারকলিপি প্রদান করলো: ক্যাম্পেইন ফর রিকগনিশন ইউকে করোনাসংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে গোলাপগঞ্জ উপজেলায় ইউনিয়নভিত্তিক টিকাদান কার্যক্রমের তারিখ ঘোষণা আব্দুল লতিফ তানু মিয়া’র মৃত্যুতে কুশিয়ারা যুব কল্যাণ পরিষদ সিলেটের শোক প্রকাশ অভিবাসন ও আশ্রয় বিষয়ক নতুন একটি সংস্থা খুলতে যাচ্ছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)
add

ধাপে ধাপে বাড়ছে চাউলের দাম, সয়াবিন তেলের দাম দেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ!!!

  • শনিবার, ৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ১৯৩ বার পড়া হয়েছে

সিলেট কুশিয়ারা ডেস্ক : দেশের বাজারে চাউলের দামের অস্থিরতা কাটাতে ভারত থেকে চাল আমদানি হলেও বাজারে এর প্রভাব নেই। দুই মাস ধরে ধাপে ধাপে চাউল ও সয়াবিন তেলের দাম বৃদ্ধি হয়ে এখন তা ক্রেতাসাধারণের নাগালের বাইরে চলে গেছে। গত সপ্তাহে সরকারি-বেসরকারিভাবে ভারত থেকে মোট ১ লাখ ১১ হাজার ৫২০ মেট্রিক টন চাল আমদানি করা হলেও এ সপ্তাহে সবচেয়ে বেশি বেড়েছে চাউল ও তেলের দাম। সেই সাথে ধীরে ধীরে বাড়ছে সবজির দামও। এছাড়া আটা, ময়দা, পেঁয়াজ, রসুন, আলু ও ডাল কিনতে গিয়েও হিমশিম খাচ্ছে মানুষ।’

সিলেটের পাইকারী বাজারে চাউলের দাম বেড়েছে বস্তা প্রতি ৫০ থেকে ৬০ টাকা। খুচরা বাজারে সাধারণ মানের আতব চাউল বিক্রি হচ্ছে ৫৮ টাকায় কেজি। অস্থিরতা বিরাজ করছে সয়াবিন তেলের তেলের বাজারেও। খুচরা ১ লিটার এখন ১৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। নিকট অতীতে চাউলের বাজার এতোটা অস্থিতিশীল হয়নি।

অনুসন্ধানে জানা যায়, সিন্ডিকেটের কবলে চাউল ও তেলের বাজার। বাজারের লাগাম এখন ১৫/১৬টি বড় সিন্ডিকেট গ্রুপের হাতে। তাই চাউলের দাম কমছে না। আমদানিকৃত চাউল বেশির ভাগই মজুদ করে রাখা হয়েছে। তাদের নির্ধারিত দামে স্থানীয় ব্যবসায়ীদের পণ্য দিচ্ছে তারা। সিলেটের সবচেয়ে বড় পাইকারী চাউলের আরত কালীঘাট বাজার ঘুরে ব্যবসায়ীরে সাথে কথা বলে জানা যায়, চাউলের বাজার এখন আর চাউল ব্যবসায়ীদের হাতে নেই। এই ব্যবসায় নেমেছে বসুন্ধরা, স্কয়ার, সিটি, এসিআই, মজুমদার গ্রুপসহ ১৬টি বড় বড় ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠান। এছাড়া এখন দেশে যেসব এলসি খোলা হয়েছে সবগুলোই সিদ্ধ চাউলের। স্থানীয় বাজারে চাউলের সংঙ্কট রয়েছে। তাই বাজারে আতব চাউলের দাম কমছে না। চিকন চাউলের আমদানি না হলে বাজার স্বাভাবিক হবে না বলে জানান ব্যবসায়ীরা।

একই সিন্ডিকেট নিয়ন্ত্রণ করছে তেলের বাজারও। তাই গত কয়েক মাসে তেলের দাম লিটার প্রতি ৮০ থেকে ১৪০ টাকা ছাড়িয়ে গেছে। বাজার ঘুরে দেখা যায়, এক লিটার রূপচাঁদা বোতলজাত সয়াবিন তেলের সর্বোচ্চ খুচরা মূল্য (এমআরপি) এখন ১৪০ টাকা। যা দেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ বলে জানিয়েছেন বিক্রেতারা। বাজারে ফ্রেশ ও তীর ব্র্যান্ডের এক লিটার সয়াবিন তেলের বোতলের এমআরপি এখন ১৩৫ টাকা এবং পুষ্টি ও বসুন্ধরা ব্র্যান্ডের দাম এখন ১৩০ টাকা। পাঁচ লিটারের বোতলের গায়ে লেখা রয়েছে রূপচাঁদার তেলের দাম ৬৮৫, ফ্রেশ, তীর ও পুষ্টির দাম ৬৫৫ এবং বসুন্ধরার দাম ৬৫০ টাকা। তবে ক্রেতারা এর চেয়ে একটু কম দামে কেনেন। ব্যবসায়ীরা বলছেন, শুধু বোতলজাত সয়াবিন তেলই নয়, খোলা সয়াবিন ও পাম তেলের দামও ব্যাপক চড়া। বাজারে ১১৫-১২০ টাকা লিটারে খোলা সয়াবিন তেল বিক্রি হচ্ছে। আর পাম তেল বিক্রি হচ্ছে প্রতি লিটার ১০৫-১১০ টাকা দরে।
সরকারি বিপণন সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি) বলছে, গত বছরের এ সময়ের তুলনায় সয়াবিন তেলের দাম এখন ১৯-২৬ শতাংশ বেশি।

আর দুই মাস পরেই রমজান। বিষয়টি মাথায় রেখে বাজারে চাউল ও ভোজ্য তেলের সরবরাহ নিশ্চিত করার প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেওয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান ব্যবসায়ীরা।

সরেজমিনে বৃহস্পতিবার নগরীর কালীঘাট চাউলের পাইকারী বাজার ঘুরে দেখা যায়, দাম বেড়ে যাওয়ায় ক্রেতাশূণ্য চাউলের বাজার। বাজারে চাউলের স্টক কম। স্থানীয় বাজারে তৈরি হচ্ছে কৃত্রিম সংকট। তাদের নির্ধারণ করা দামেই কিনতে হচ্ছে স্থানীয় ব্যবসায়ীদের। কয়েক বছর আগেও স্থানীয় ব্যবসায়ীদের কাছে মান ভেদে ৪ শ’ থেকে ৫শ’ টাকা মন ধান বিক্রি করতো কৃৃষকরা। সেই ধানের মণ এখন ১১শ’ থেকে ১২শ’ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। বাজারে চাউলের স্টক কম। দুই একটা চাউলের দাম কমেছে এছাড়া বাকি সবগুলোর দাম রয়েছে অপরিবর্তীত। পাইকারী বাজারে মানভেদে মোটা ও চিকনচাউল বিক্রি হচ্ছে সর্বনিম্ন মোটাচাউল সিদ্ধ ১৭শ’ ৩০ টাকা থেকে ১৭শ’ ৮০ টাকা, মালা সিদ্ধ ২৩শ’ ৫০ টাকা থেকে ২৪শ’ ৫০ টাকা, মিনিকেট আশুগঞ্জ ২৪শ’ ৫০ টাকা থেকে ২৬শ’ ৫০ টাকা। চিকন চাল স্থানীয়- ২৯ (পুরানো) ২৪শ’ ৫০ টাকা থেকে ২৫শ’ ৫০ টাকা, ২৮ (পুরানো) ২৬শ’ ৫০ টাকা থেকে ২৭শ’ টাকা, আশুগঞ্জের শিশির (পুরানো) ২৬শ’ ৫০ টাকা থেকে ২৬শ’ ৫০ টাকা, হীরা (পুরানো) ২১শ’ ৫০ থেকে ২২শ’ টাকা, স্বর্ণা (নতুন) ১৯শ’ ৮০ থেকে ২ হাজার ৬০ টাকা, রঞ্জিত ৪৯ (নতুন) ২ হাজার থেকে ২১ শ’ ৫০ টাকা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কালীঘাটের এক ব্যবসায়ী জানান, বাজার এখন আর আমাদের নিয়ন্ত্রণে নেই। আমরা আগে সরাসরি কৃষকদের কাছ থেকে ধান কিনতাম। বসুন্ধরা, এসিআই, স্কয়ার, সিটির মত বড় বড় ব্যবসায়ীক গ্রুপ এখন চাউলের ব্যবসায় নেমেছে। চাউল আমদানি হলেও দাম কমছে না কেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, বাজারে যারা কৃত্রিম সঙ্কট তৈরি করে রেখেছে তারাই বড় একটা অংশ এলসি করেছে। তারা আমদানিকৃত চাউল স্টক করে রেখেছে। এখনি যদি সিন্ডিকেটের যশোরের নয়াপাড়া, নওগাঁ মিলে অভিযান পরিচালনা করা হয় তাহলে কয়েক লক্ষ মেট্রিকটন চাউল উদ্ধার হবে। বাজারে কৃত্রিম সংকট তৈরি করে সাধারণ ভোক্তাদের হয়রানি করছে। তাদের নির্ধারিত দামে আমরা স্থানীয় ব্যবসায়ীরা কিনতে বাধ্য। বিগত দিনেও বাজারের এমন খারাপ পরিস্থিতি হয়নি। ওয়ান ইলিভেনের সময়টাতেও আমরা এমনটা লক্ষ্য করিনি।

এব্যাপারে সিলেট কালীঘাট চাউল বাজার ব্যবসায়িক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহমদ জানান, বাজারে চাউলের মজুদ কম। সরকার সিদ্ধ চাউলের এলসি খুলেছে। সিলেটে সিদ্ধ চাউলের চাহিদা কম। আতব চাউলের এলসি খোলার আগ পর্যন্ত বাজার অপরিবর্তীত থাকবে।

add

ভালো লাগলে এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই কেটাগরির আরো খবর
add

বাংলাদেশে কোরোনা

সর্বশেষ (গত ২৪ ঘন্টার রিপোর্ট)
আক্রান্ত
মৃত্যু
সুস্থ
পরীক্ষা
সর্বমোট
© sylhetkushiara 2020 All rights reserved. কারিগরি সহায়তা: WhatHappen
Theme Customized By BreakingNews